ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার সহজ উপায় কি? এই প্রশ্ন করলে, এর একটি অনেক সহজ উত্তর হলো, “কিছু টাকা দিয়ে ফেসবুকে পেইড প্রমোশন করা“.

সত্যি বললে, ফেসবুককে কিছু টাকা দিয়ে যেকোনো Facebook page promote করানোর প্রক্রিয়া যথেষ্ট লাভজনক।

তাছাড়া, এই মাধ্যমে পেজ জনপ্রিয় করার ক্ষেত্রে আপনার কোনো প্রকারের কাজ করতে হবেনা।

সবটাই, Facebook নিজে নিজেই করবে ও আপনার পেজে তাড়াতাড়ি অনেক likes এবং followers নিয়ে আসবে।

তবে, প্রত্যেকেই কিন্তু টাকা দ্বারা নিজের ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার এই উপায় পছন্দ করেননা।

আর আমিও আপনাদের এটাই বলবো যে,

“কিছুটা টাইম লাগলেও, টাকা দিয়ে ফেসবুক পেজ প্রমোট করার কোনো দরকার নেই”.

কেননা, ১টি “Facebook page” কেবল তখন জনপ্রিয়, “যখন সেই পেজে পর্যাপ্ত পছন্দ এবং ফলোয়ার্স থাকছে”।

আর, আপনার ফেবু পেজে প্রচুর পছন্দ এবং ফলোয়ার্স নিয়ে আসার জন্য, এমনিতে নানারকম ফ্রি এবং কার্যকর উপায় এবং প্রক্রিয়া রয়েছে।

তাছাড়া, যখন পেজের content বা post গুলো লোকেরা বেশি পছন্দ করবেন, সেই ক্ষেত্রেও আপনার পেজটিকে সনামধন্য  যেতে পারে।

মনে রাখবেন, 

নিজের ফেবু পেজে বহু অনুসরণকারী (followers) এবং পছন্দ (like) বৃদ্ধির জন্য জন্য, ব্যস্ততার (Engagement) কৌশলটি আপনার জানতে হবে।

নিজের পেজে, লোকেদের কেমনে বেশি ব্যস্ত করে রাখতে পারবেন, সেই বিষয়ে আপনার ভাবতে হবে।

কিভাবে ফেবু ভক্ত পেজ খুলবেন ?

ফেসবুক হতে কেমনে টাকা ইনকাম করবেন ?

এক্ষেত্রে, লোকেদের নিজের ফেবু পেজে ব্যাস্ত করে রাখার জন্য ও পেজের মমতা বৃদ্ধি করার জন্য আপনার পাবলিশ করতে হবে, “আকর্ষক সামগ্রী, ছবি, পোস্ট বা কনটেন্ট”.

নিয়মিত ভাবে পেজে আকর্ষক কনটেন্ট প্রকাশ করতে হবে।

অন্যদের থেকে content/post কপি করবেননা।

এমন সময়তে পোস্ট করতে হবে, যখন লোকেরা ফেবুতে অনলাইন থাকার সুযোগ বেশি।

কেবল কমন টেক্সট কনটেন্ট প্রকাশ করলেই চলবেনা।

Quiz, poll, image, quotes, videos প্রভৃতি বিভিন্ন ধরণের কনটেন্ট গুলো নিজের ফেবু পেজে প্রকাশ করুন।

ওপরে আমি যেগুলোর ব্যাপারে বললাম, সেগুলোর ওপরে নজর দিলে আপনার পেজ এর পছন্দ অবশই বৃদ্ধি পাবে।

এছাড়া, আরো অন্যান্য জরুরি টিপস এবং মাধ্যম রয়েছে।

সেগুলোর মধ্যে, কিভাবে ফেসবুক পেজ প্রমোট করতে হয় তার সঠিক নিয়ম গুলো অবশই আপনার জেনে রাখতে হবে।

বন্ধুরা, মনে রাখার চেষ্টা করবেন যেকোনো এফবি পেজ, নিজে নিজে জনপ্রিয় (famous) কখনোই হয়না।

প্রথম পরিস্থিতিতে আপনার পর্যাপ্ত পরিশ্রম করে নিজের পেজ টিকে লোকেদের মধ্যে পৌঁছতে হবে।

এক্ষেত্রে, আপনার নানারকম আলাদা আলাদা ব্যপার গুলো নিয়ে ভাবতে হবে এবং কাজ করতে হবে।

আর, যদি আপনার পেজের কনটেন্ট বা পোস্ট গুলো দেখে লোকেরা তোষামোদ পান বা প্রবৃত্তি পান,

তাহলে অবশই, পরে পরে নিজে নিজেই আপনার Facebook page প্রচুর share হতে থাকবে।

যার ফলে, আপনি নিজের পেজে নিজে নিজেই like এবং followers পেতে থাকবেন।

কিন্তু, যখন আপনার ফেবু পেজটি নিউ তখন সেটাকে জনপ্রিয় করার জন্য, নিচে দেওয়া পথ গুলো করলে অবশই লাভ পাবেন।

মনে রাখবেন, নিজের নতুন ফেসবুক পেজটিকে তাড়াতাড়ি জনপ্রিয় করার জন্য আপনার জেনেনিতে হবে,

ফেসবুক পেজ প্রমোট করার নিয়ম গুলোর বিষয়ে“.

কেননা, আপনি আপনার পেজটি যত বেশি প্রমোট ও প্রচার করবেন,

ততটাই অধিক লোকেরা আপনার FB Page এর বিষয়ে জেনেনিতে পারবেন।

আর, যত বহু লোকেরা আপনার Page এর ব্যাপারে জেনেনিবেন, পেজটি ততটাই বেশি সনামধন্য হওয়ার সুযোগ থাকবে।

তাহলে চলুন, পাদদেশে আমরা জেনেনেই, “কিভাবে একটি ফেবু পেজ পপুলার ও সনামধন্য করা যেতে পারে তার ১৫ টি লাভজনক পথ গুলোর বিষয়ে”।

১. রেগুলার পোস্ট করতে হবে 

ইংরেজিতে একটি কথা রয়েছে, “Consistency is the key to success”.

মানে, যখন আপনি যেকোনো বিষয় রেগুলার ভাবে করবেন, সেখানে সফলতা পাওয়ার পর্যাপ্ত সুযোগ বেড়ে যায়।

তাই, নিজের পেজে রেগুলার পোস্ট পাবলিশ করতে হবে।

তাছাড়া, Facebook কতিপয় বিশেষ algorithm ইউজ করে ডিসিশন নিয়ে থাকে যে,

“কখন কোন সময় page content গুলোকে আদার্স লোকেদের feed (people’s feeds) এ দেখানো হবে”.

আর এই উপায়ের ফলে, আপনার পেজে publish করা post / content গুলোর প্রায় বেশির অংশ publish হওয়ার সাথে সাথেই আদার্স লোকেদের feeds এই দেখানো হয়।

তাই, নিয়মিত ভাবে (regular) নিজের পেজে কনটেন্ট পাবলিশ করতে থাকলে,

আপনার Facebook page এবং Page এর content গুলো আদার্স লোকেদের ফিড (feed) এর মধ্যে অধিক পরিমানে দেখানো হবে।

২. ঠিক কনটেন্ট পোস্ট করতে হবে 

নিয়মিত ভাবে বেশি বেশি post বা content নিজের পেজে প্রকাশ করার উদ্দেশ্যে, যেকোনো প্রকারের পোস্ট প্রকাশ করলেই কাজ হবেনা।

Facebook এর algorithm গুলো সেই পোস্ট ও কনটেন্ট গুলোকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে থাকে, যেগুলোতে media এবং plain text ব্যবহার হয়ে থাকে।

তাই, যখন আপনি আকর্ষণীয় এবং মজাদার গণমাধ্যম কনটেন্ট (images, videos, infographic etc.) এবং তথ্যপূর্ণ টেক্সট কনটেন্ট গুলো নিজের পেজে পাবলিশ করবেন,

তখন সেগুলো আপনার followers দের timeline এর ভিতরে প্রায়ই দেখানোর চান্স বেড়ে উঠবে।

তাছাড়া, যেকোনো ক্ষেত্রে image ও video কনটেন্ট এর চাহিদা ও টান পর্যাপ্ত বেশি।

তাই, আপনার পেজের মজাদার image এবং video কনটেন্ট গুলো যখন পেজ ফলোয়ার্স দের timeline এর ভিতরে দেখানো হবে,

তখন, follower এর timeline এর দ্বারা অন্যরাও আপনার পেজ ও পেজ কনটেন্ট এর বিষয়ে জেনেনিতে পারবেন।

৩. আলাদা আলাদা কনটেন্ট পোস্ট করুন 

নিজের ফেসবুক পেজে কেবলমাত্র এক ধরণের কানেন্ট publish করবেননা।

কেননা, একি প্রকারের কনটেন্ট লোকেরা বেশি সময় ধরে লাইক করেননা।

তাই, প্রত্যেক দিন আলাদা আলাদা ধরণের পোস্ট যেমন,

Tutorial 

Daily tips 

Question 

Poll 

Videos 

Meme 

Quotes 

ইত্যাদি, এ ধরণের পোস্ট গুলো করতে হবে।

এতে, আপনার পেজের value ও চাহিদা বাড়তে থাকবে।

কেননা, এভাবে আপনি আলাদা আলাদা কনটেন্ট এর মাধ্যমে লোকেদের নিজের পেজে ব্যস্ত রাখতে পারছেন।

আর, যখন বেশি লোকেরা আপনার ফেবু পেজে ব্যস্ত থাকবে,

তখন আপনার পেজেটিকে জনপ্রিয় অবশই  যেতে পারে।

তাই না ?

৪. আপনার চেনা পরিচিত লোকেদের এবং ফ্রেন্ডদের বলুন 

যখন আপনার পেজ নিউ থাকবে, সেই সময় সেখানে কিছু পরিমানে like এবং follower নিয়ে আসার একটায় সরল উপায় রয়েছে,

নিজের Facebook profile এর মধ্যে থাকা friends নিজের page like করার জন্য invite করুন।

যদি আপনার Facebook profile এর মধ্যে ১০০০ টি friends আছে ও তাদের ভিতরে যদি ১০০ মনুষ্য আপনার পেজ লাইক করেন,

তাহলে সেটাও তা সত্ত্বেও অনেক।

কেননা, যখন আপনি আপনার পেজে কতিপয় কনটেন্ট publish করবেন,

তখন সেই কনটেন্ট গুলো আপনার পেজ follow করা friends দের timeline এর মধ্যে দেখানো হবে।

ফলে, আপনার ফ্রেন্ডের timeline থেকেও আদার্স লোকেরা আপনার পেজ এর ব্যাপারে জানতে পারেন।

৫. অন্যান্য গ্রুপে (Group) পেজ শেয়ার করুন  

ফেসবুক এর ভিতরে হাজার হাজার গ্রুপ বিদ্যমান যেগুলোতে অসংখক followers / members রয়েছে। আর তাই, নিজের ফেবু পেজ প্রমোট করার সর্বসেরা মাধ্যম হলো এ গ্রুপ গুলো। আপনার পেজ এর কনটেন্ট গুলো আপনি বিভিন্ন groups এর ভিতরে share করুন। এতে, নানারকম groups গুলোতে থাকা members রা আপনার পেজ ও পেজের কনটেন্ট গুলো দেখতে পারবেন। তাছাড়া, যদি আপনার কনটেন্ট মজাদার হয়ে থাকে, তাহলে এ groups গুলোর থেকেও অনেক followers আপনি পাবেন।

৬. নিজের এফবি পেজে সম্পূর্ণ সেটিং করুন

নিজের পেজ প্রস্তুত করার পর সেখানে গুরুত্বপূর্ণ প্রত্যেকটি settings আপনার করে নিতে হবে।

যেমন, পেজ এর একটি আকর্ষণীয় profile picture, page cover photo ইত্যাদি।

তাছাড়া, description এর অংশে নিজের পেজের ব্যাপারে কিছুটা ইনফরমেশন আপনার দ্বারা দেওয়ার জন্য হবে।

মনে রাখবেন, যতটা অধিক আকর্ষণীয় ও প্রফেশনাল আপনার পেজটি দেখতে হবে,

ততটাই বহু লোকেরা আপনার পেজ অনুসরণ করবেন।

এবং বহু বহু পেজ ফলোয়ার্স মানে বেশি পপুলার আপনার পেজ।

৭. অন্যান্য সোশাল মিডিয়াতে পেজ প্রোমোট করুন 

Facebook এর বাইরেও আরো অন্যান্য জনপ্রিয় social media platform রয়েছে, যেগুলো ইউজ করে আপনি আপনার ফেবু পেজ প্রমোট করতে পারবেন। যদি আপনার আদার্স সোশাল নেটওয়ার্ক যেমন, WhatsApp, twitter, Instagram, LinkedIn ইত্যাদি গুলোতে একটি profile বা page রয়েছে,

তাহলে সেখানে নিজের Facebook page টি প্রমোট করতে পারবেন।

এবং, যদি আপনার পেজ এর কনটেন্ট লোকেরা লাইক করেন,

তাহলে অন্যান্য social media গুলোর থেকেও পর্যাপ্ত followers আপনি পাবেন।

মোবাইল দিয়ে টুইটার একাউন্ট খুলুন 

৮. নিজের পেজে কনটেস্ট (contest) রাখুন

লোকেরা অনলাইন অনলাইনে নিজের জ্ঞান, এক্সপেরিয়েন্স প্রভৃতি দেখানোর জন্য অনেক অস্থির হয়ে থাকে। তাই, আপনি প্রায় সময় কতিপয় প্রশ্ন, কুইজ (Quiz) বা পোল (poll) ইত্যাদি রেখে, নিজের পেজের টান বৃদ্ধি করিয়ে নিতে পারবেন। প্রশ্ন বা কুইজ এর বাইরেও মাঝে মাঝে কয়েকটি বিশেষ কনটেস্ট রাখুন। এবং, যেই ব্যক্তি কনটেন্ট জয়ী হয়ে নিবেন তার জন্য ১টি বিশেষ পুরস্কার রাখুন। এভাবে, প্রচুর ফেবু পেজ নিজেকে সনামধন্য ও প্রমোট অবশই করেছেন। তাই, একবার এই প্রক্রিয়া অবশই ইউজ করে দেখবেন।

৯. ফেসবুক পেজটি টাকা দ্বারা প্রচার করুন 

এমনিতে যখনি আমরা আমাদের এফবি পেজে কিছু কনটেন্ট পোস্ট করে থাকি,

তখন, এফবি হতে সঙ্গে সাথে সেই পোস্টটি টাকা কর্তৃক বুস্ট করার অপসন দেখানো হয়।

তাই, আপনি যদি কোনো কষ্ট ছাড়া তাড়াতাড়ি নিজের পেজটিতে অধিক like এবং followers বানিয়ে নিতে চাচ্ছেন,

তাহলে আপনার এ প্রক্রিয়াটি ইউজ করতে হবে।

Facebook paid promotion বা boost এর প্রক্রিয়াতে, ফেসবুক আপনার থেকে কয়েকটি টাকা নিয়ে আপনার পেজ বা পেজের কনটেন্ট গুলো আদার্স Facebook user দের কাছে নিজে নিজে দেখায়। আর ফলে, আপনার পেজে অনেক like বা followers বৃদ্ধিতে হতে থাকে।

উদাহরণ স্বরূপে,

ফেসবুক কে যদি $3 পেমেন্ট করছেন তাহলে পেজটিকে প্রায় ৩৫০০ লোকেদের নিকট ফেসবুক advertise / share / promote করবে।

১০. সনামধন্য ও ট্রেন্ডিং বিষয়ে ভিডিও সৃষ্টি করুন 

আপনি যদি কয়েকটি trending topic নিয়ে ছোট ছোট video তৈরি করে নিজের পেজে regular publish করতে পারেন,

তাহলেও আপনার পেজ প্রচুর লোকেদের নিকট শেয়ার হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।

কেননা, trending বিষয়ে ভিডিও তৈরি করলে, সেগুলো ফেবুতে প্রচুর শেয়ার হয়ে থাকে। ফলে, আপনার ভিডিও গুলোতে view হওয়ার সাথে সঙ্গে পেজের জন্য কতিপয় নিউ followers পেয়ে যাবেন। তাই, কমেও ২ দিতি করে প্রত্যেক দিন trending topic গুলো নিয়ে ভিডিও আপলোড করার ট্রাই করুন।

১১. Hashtag (#) এর ইউজ করুন 

Hashtag হলো এইরকম এক প্রক্রিয়া যেটার দ্বারা আপনি আপনার সম্পূর্ণ published content টিকে বিশেষ কিছু ক্যাটাগরি দ্বারা দিতে পারবেন।

মানে, আপনি আপনার কনটেন্ট পাবলিশ করার সময়, কনটেন্ট এর সাথে সম্পৃক্ত খাঁটি topic গুলোকে hashtag (#) হিসেবে কর্তৃক দেওয়ার জন্য পারবেন। যেমন, #income, #Facebook ইত্যাদি। হ্যাশট্যাগ থেকে পারে যেকোনো বাণী বা শব্দ। আর যখনি, আপনার পোস্টে ইউজ করা হ্যাশট্যাগ টপিক গুলো লোকেরা সার্চ করেন, তখন, সেই hashtag এর ভেতরে আপনার পোস্ট গুলোকেও দেখানো হয়। মানে ধরুন, নিজের পেজে আপনি ইউটিউবের বিষয়ে ১টি কনটেন্ট বা পোস্ট আপডেট দিলেন। এবং, পোস্ট করার টাইম আপনি ইউজ করেছেন #YouTube.

এবার,

এইযে #YouTube আপনি নিজের পোস্টে ব্যবহার করেছেন,

সেই #YouTube টিতে যদি যেকোনো ইউসার ক্লিক করেন তাহলে সেখানে আপনার পোস্ট বা কনটেন্ট টিকেও দেখানো হবে।

এভাবে, পোস্ট এর সাথে জড়িত কিছু রিলেটেড হাস্যটাগ ইউজ করে নিজের পেজ ও পেজ এর কনটেন্ট গুলোকে প্রমোট করতে পারবেন।

১২. নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটের দ্বারা প্রমোট 

যদি আপনার ১টি ব্লগ বা ওয়েবসাইট রয়েছে, তাহলে সেখানে নিজের Facebook page এর link কর্তৃক দেওয়ার জন্য পারবেন।

এভাবে, আপনারা নিজের blog বা সাইটের মাধমেও নিজের ফেবু পেজ প্রমোট বা মার্কেটিং করতে পারবেন।

তাছাড়া, যদি আপনার একটি YouTube channel আছে,

তাহলে চ্যানেলে আপলোড করা প্রত্যেকটি ভিডিওর description এর জায়গাতে পেজ এর লিংক দিতে পারবেন।

ফেসবুক শপ ডিজাইন কমপ্লিট টিউটোরিয়াল